Story of Success

ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজি এখানকার শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার গড়ার জন্য কাজ করে থাকে। আমরা এখানকার শিক্ষার্থীদের বর্তমান কর্মবাজারের দক্ষতার চাহিদা মোতাবেক শিক্ষা দিয়ে থাকে। ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা দেশে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছে। একই সাথে এখনকার শিক্ষার্থীরা ডিপ্লোমা শেষ করে দেশে ও বিদেশের বিভিন্ন স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত আছে।


টেক্সটাইল ও গার্মেন্টস ডিজাইন টেকনোলজির শিক্ষার্থীদের অসাধারণ সাফল্যঃ


মোঃ জাফল ইকবাল, কম্পিউটার টেকনোলজি, ২০০৫-০৬ সেশন

ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের ২০০৫-০৬ সেশনের কম্পিউটার বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ জাফর ইকবাল ২০০৯ সালে কম্পিউটার বিভাগ থেকে ডিপ্লোমা শেষ করে পরবর্তিতে বিএসসি ও এমএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে বর্তমানে দি সিটি ব্যাংক লিমিটেড এর আইটি ডিভিশনে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত। ইনষ্টিটিউটের পক্ষ থেকে পড়াশোনাকালীন তাদের প্রোগ্রামিং সহ অন্যান্য বিষয় শেখাতে সর্বাত্বক সহযোগীতা করা হয়েছে। ইনষ্টিটিউটের পক্ষ থেকে জাফর ইকবালের জন্য শুভেচ্ছা ও শুভকামনা।


হোসনেআরা (টুম্পা), সেশন ২০১১-১২

পরিশ্রম করলে সফলতা মেলে
সেক্ষেত্রে মেয়েরাও পিছিয়ে নেই
ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের ২০১১-১২ সেশনের কম্পিউটার বিভাগের শিক্ষার্থী হোসনেআরা (টুম্পা) বর্তমানে Nanjing University of Post and Telecommunications এর কম্পিউটার সাইন্স এন্ড টেকনোলজি বিভাগে বিএসসি প্রোগ্রামে অধ্যয়নরত। হোসনেআরা (টুম্পা) পরিশ্রম ও সফলতার একটি উদাহরন, কলেজে পড়াকালীন সে ক্যাম্পাসে পার্টটাইম জব করত এবং পাড়াশোনাতেও ভাল ফলাফল অর্জন করে। পাশ করে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটে জবের সাথে সাথে সে দেশের বাইরে পড়তে যাবার প্রসেসিং করে। কঠোর পরিশ্রম করে নিজে জব করে পড়া এবং তার সাথে দেশের বাইরে একটি ভাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার সুযোগ তৈরি করার জন্য হোসনেআরা (টুম্পা) সকল শিক্ষর্থীদের কাছে দৃষ্টান্ত। 


এস এম মোরশেদ, সেশন ২০১২-১৩

ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের ২০১২-১৩ সেশনের শিক্ষার্থী এস এম মোরশেদ বর্তমানে জাাপানে পড়াশোনার পাশাপাশি একটি কোম্পানীতে খন্ডকালীন কাজ করছে। পরিশ্রম ও নিষ্ঠার সাথে চেষ্টা করলে অবশ্যই সফলতা আসবে তার একটি উদাহরন মোরশেদ।


মোঃ রাকিব (সেশন ২০১২-১৩)

আমাদের ২০১২-১৩ সেশনের ছাত্র রাকিবুল বর্তমানে স্কলারশীপ নিয়ে চায়নার Changzhou university বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত আছে। রাকিবুল এবং তার শিক্ষকের কাছ থেকে একটি ভিডিও বার্তা।


ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউটের ২০১৩-১৪ সেশনের টেক্সটাইল বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ তানিম হোসাইন ২০১৭ সালে ৩.৯৭ সিজিপিএ নিয়ে (৪ এর মধ্যে) টেক্সটাইল-গার্মেন্টস টেকনোলজির মধ্যে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে সমগ্র বাংলাদেশের মধ্যে এককভাবে প্রথম স্থান অধিকার করে। বর্তমান তামিম Dhaka University of Engineering and Technology (DUET) এর টেক্সটাইল ইঞ্জনিয়ারিং বিভাগে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে অধ্যয়নরত।


মহিউদ্দিন মামুন (কম্পিউটার টেকনোলজি, ২০০৫-০৬ সেশন)

মহিউদ্দিন মামুন ২০০৯ সালে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট থেকে ৩.৯৩ সিজিপিএ নিয়ে সমগ্র বাংলাদেশে ৩য় স্থান অধিকার করে ডিপ্লোমা শেষ করে বর্তমানে গোপালগঞ্জ সরকারি পলিটেকনিক ইনষ্টিটিউটে শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছে।


মোঃ তানভির আহমেদ (কম্পিউটার টেকনোলজি, ২০০৬-০৭ সেশন)

তানভির আহমেদ ২০১০ সালে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট থেকে ৩.৮৯ সিজিপিএ নিয়ে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডর মেধা তালিকায় স্থান করে ডিপ্লোমা শেষ করে বর্তমানে ঢাকা পাওয়ার ডিষ্ট্রিবিউশন কোম্পনাীতে কর্মরত আছে।


রাশাদ হাসান(সিভিল টেকনোলজি, ২০১০-১১ সেশন)

রাশাদ হাসান ২০১৪ সালে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট থেকে সিভিল টেকনোলজি থেকে পাশ করে বর্তমানে শাহ সিমেন্ট লিমিটেড েএর প্রোডাক্ট ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত আছে।


মোঃ নুরুল ইসলাম (মেকানিক্যাল টেকনোলজি, ২০১১-১২ সেশন)

নুরুল ইসলাম ২০১৫ সালে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট থেকে মেকানিক্যাল টেকনোলজি থেকে পাশ করে বর্তমানে জনতা জুট মিলস লিমিটেড এর সাব এ্যাসিষ্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত আছে।                                                 


শীপবিল্ডিং টেকনোজির শিক্ষার্থীদের সাফল্য


মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন (ইলেকট্রিক্যাল টেকনোলজি, ২০১০-১১ সেশন)

আব্দুল্লাহ আল মামুন ২০১৪ সালে ম্যানগ্রোভ ইনষ্টিটিউট থেকে ইলেকট্রিক্যাল টেকনোলজি থেকে পাশ করে বর্তমানে লিরা গ্রুপ অব ইন্ডাষ্ট্রিজ এর সাব এ্যাসিষ্ট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কর্মরত আছে।